জাপানে দুর্যোগ মোকাবেলায় ড্রোন

 

আগের প্রাকৃতিক দুর্যোগগুলোর কথা বিবেচনা করে তা মোকাবেলায় নিজেদের প্রস্তুত করতে আরও ভালো উপায় বের করার জন্য কাজ করছে জাপান। সে লক্ষ্যেই এবার আকাশ পথকে কীভাবে কাজে লাগানো যায় তা নিয়েই পরীক্ষায় নেমেছে দেশটি, জানিয়েছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট সিনেট। স্পিকারযুক্ত বিশেষ ড্রোনগুলো দুর্যোগের সময় দেশটির নাগরিকদের নিকটবর্তী আশ্রয়কেন্দ্রের পথ দেখাতে সহায়ক হতে পারে। শুধু তাই নয়, উচু ভবনের আশপাশে বাতাসের গতিবেগ ‘বলতে’ এবং নিচের রাস্তার ছবিও তুলতে পারে এই ড্রোন।
পথ দেখাতে ড্রোনটিতে রাখা হয়েছে বিল্ট-ইন জিপিএস। এর মাধ্যমে ড্রোনের স্বয়ংক্রিয় চালনাও পরীক্ষা করা হয়।

টোকিও’র অত্যন্ত জনবহুল শিনজুকু এলাকায় ড্রোনের এ পরীক্ষা চালানো হয়। পরীক্ষা সময় এর জন্য বিশেষ রেডিও চ্যানেল তৈরি করেছে দেশটি।

প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় নতুন প্রযুক্তি ব্যবহারে এটিই জাপানের প্রথম চেষ্টা নয়। আগের বছরই দেশটির এক বিশ্ববিদ্যালয় সুনামির মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় নাগরিকদের প্রশিক্ষণ দিতে ফেইসবুকের ভার্চুয়াল রিয়ালিটি ডিভাইস অকুলাস রিফট ব্যবহার করে।

সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ড্রোনের ব্যবহার। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানগুলো এই শিল্পের উন্নয়নে কাজ করছে। এর আগে পণ্য সরবরাহ কাজের জন্যও ড্রোনের ব্যবহার পরীক্ষা করতে দেখা গেছে।

Leave a comment