পরকীয়া ‘ফাঁস করে’ মামলায় উবার

 

অভিযোগকারী জানান, তিনি তার স্ত্রীর ফোন থেকে উবার ড্রাইভারের জন্য অনুরোধ করেছিলেন। পরে লগ আউট না করায় ঐ অ্যাপ্লিকেশন তার স্ত্রীর আইফোনেই তার যাত্রার বিষয়ে ক্রমাগত নোটিফিকেশন পাঠাতে শুরু করে, যা তার স্ত্রীর মনে সন্দেহ সৃষ্টি করে। এ সন্দেহের পরিণতি শেষ পর্যন্ত তালাকে গিয়ে গড়ায়। মামলায় প্রায় ৪৫০ কোটি ইউরো দাবি করা হয়েছে বলে জানায় প্রযুক্তি সাইট ভার্জ।

“আমার মক্কেল এই অ্যাপ্লিকেশনের বাগ-এর শিকার,” আদালতে মামলা চলাকালে আইনজীবী ডেভিড-আন্দ্রে ডারমোন বলেন।

“এই বাগ তার ব্যক্তিগত জীবনেও সমস্যা সৃষ্টি করেছে,” যোগ করেন আইনজীবী।

মামলায় দাবী করা অর্থের পরিমান সম্পর্কে আইনজীবী কোনো মন্তব্য করেননি, তবে তিনি জানান তার মক্কেল কিছুদিন বিচ্ছিন্ন আর বেনামেই থাকতে চাচ্ছেন।

অন্য ব্যবহারকারীরাও উবার সফটওয়্যারের এই বাগের শিকার হয়েছেন জানা গেছে।

পরীক্ষার জন্য একটি আইফোন থেকে উবার অ্যাপে লগ ইন আর লগ আউট করে পরে আরেকটি ফোন থেকে লগ ইন করে উবার ড্রাইভার অর্ডার করা হয়। দেখা গেছে, অ্যাপটি পরবর্তিতে দুইটি ফোনেই অর্ডারের বিষয়ে বিস্তারিত নোটিফিকেশন পাঠাতে থাকে।

ডিসেম্বরে আইফোনে এক সফটওয়্যার হালনাগাদের পর থেকে এমন সমস্যা হচ্ছে বলে জানায় ভার্জ। অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলোতে এই সমস্যা হচ্ছে না।

উবার এই মামলার বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি, তবে জানিয়েছে তারা তাদের ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য নিরাপদ রাখাকেই গুরুত্ব দিচ্ছে।

Leave a comment